উচ্চ মহলে নাশকতা মামলার আসামির চলাফেরা

স্টাফ রিপোর্টার

সরকার বিরোধী আন্দোলনের হোতা এবং নাশকতা মামলার আসামি বিমান বন্দরের মতো স্পর্শকাতর এলাকায় সিকিউরিটি কিংবা ক্লিনার নিয়োগের চেষ্টা চালানো হয়েছিলো। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে এ সংক্রান্ত অভিযোগের ভিত্তিতে দ্রæত ব্যবস্থা নিতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তর সমূহকে নির্দেশ দেয়া হয়েছিলো।
সূত্র মতে, গালফ সিকিউরিটি সার্ভিস প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নাম আবু বকর সিদ্দিক স্বপন। যার বিরুদ্ধে বিগত ২০১৬ সালে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অবরোধ চলাকালে পল্টন থানায় গাড়ী পোড়ানোসহ নাশকতার মামলা রয়েছে। বর্তমানেও তিনি বিএনপির দলীয় কার্যক্রমে নিয়মিত অংশ নেন। অথচ নিজের স্বার্থে এবং তার প্রতিষ্ঠানের জন্য টেন্ডার বাগিয়ে নিতে সখ্যতা গড়ে তুলেছেন আওয়ামীলীগের কিছু নেতাদের সাথে। আওয়ামলীগের ওইসব নেতাদের বিরুদ্ধে স্বপনের কাছ থেকে সুবিধা নেয়ারও অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ রয়েছে, আবুবকর সিদ্দিক স্বপন নিজের প্রতিষ্ঠানে কাজ পেতে বিভিণœ ধরনের অপকৌশলের আশ্রয় নেন। টেন্ডার ভাগিয়ে নিতে অন্য কোন কোম্পানী কাজ পেলে তাদের বিরুদ্ধে অযথাই বিভিন্ন ধরনের মামলা দায়ের করেন। এক পর্যায়ে সমঝোতার মাধ্যমে কাজ নিতে সক্ষম হন স্বপন। স্বপনের বিরুদ্ধে এসব বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ে অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নিতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়কে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

আপনার মতামত লিখুন :