কুমিল্লার ব্রাক্ষনপাড়ায় সিএনজি ষ্ট্যানে অবৈধ টোকেন বাণিজ্য সরকার হারাচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব

মোহাম্মদ শাহ্ আলম শফি, কুমিল্লা

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় সিএনজি ষ্ট্যান্ডে টোকেন দিয়ে অবৈধ ভাবে টোকেন বাণিজ্য , কুমিল্লা জেলা অটো রিক্সা -অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন রেঁিজ ঃ নং ২২৯৮ বুড়িচং শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আনোয়ার হোসেন (আনু) ,জলিল মেম্বার গংরা কুমিল্লা জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ৯৩৮ ্ও কুমিল্লা জেলা অটো রিক্সা -অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন এর টোকেনের মাধ্যমে প্রতিদিন বাস, ট্রাক,মিনিট্রাক ,কার্ভাড ভ্যান ,পিকাব বড়/ছোট, ড্রামট্রাক,সিএনজি ,অটোরিক্সা ,নসিমন হতে প্রতিদিন ল্াখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে । সরকার হারাচ্ছে বিপুল পরিমান রাজস্ব। জনমনে প্রশ্ন আদায়কারিদের খুটির জোর কোথায় ? চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্বিতীয় শ্রম আদালতে ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আবুল হাসেম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করা চলমান অবস্থায় কি ভাবে ব্রাক্ষনপাড়া উপজেলা সদরে সি এন জি ষ্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে টোকেন দিয়ে অবৈধভাবে চাঁদা আদায় করছে আর প্রশাসন নিরবতা পালন করছে বিষয়টি জনমনে প্রশ্নের সম্মুখিন হয়ে পরেছে। অবৈধ টোল আদায়ের ব্যাপারে জনৈক আব্দুল আলিম জেলা প্রশাসক কুমিল্লার বরাবরে গত ৬ সেপ্টেম্বর এক অভিযোগ দায়ের করে প্রতিকার প্রার্থনা করেন। অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন ব্রাক্ষনপাড়া উপজেলা গত ২ মার্চ ২০২০ খ্রিঃ টেন্ডার মতে অভিযোগকারী আব্দুল আলিম টেন্ডার ড্রপ করেন। উক্ত টেন্ডারে আব্দুল আলিম সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ঘোষিত হয়। তিনি সিডিউইল এর ধার্যমতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে সোনালী ব্যাংক লিমিটেড বুড়িচং শাখার মাধ্যমে সর্বমোট ১০ লাখ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা প্রদান করেন । তৎসর্তে ও অবৈধ ভাবে টোল আদায়ের বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন কে জানালেও কোনরকম প্রতিকার না পেয়ে জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। আব্দুল আলিম আরও জানান সরকারি কোষাগারে বিধি মোতাবেক তিনি নির্ধারিত টাকা প্রদান করে যেমনি ক্ষতিগ্রস্থ অপরদিকে সরকার ও প্রতিবছর রাজস্ব হারাচ্ছে ২৮ লক্ষ টাকা।তিনি সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ইজারার কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারে সে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসকের সহযোগীতা কামনা করেন। এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নিকট অবৈধ টোল আদায়কারী,আনোয়ার হোসেন ও জলিল মেম্বার গংদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান। এ বিষয়ে আনোয়ার হোসেন আনু জানান আমি কুমিল্লা জেলা অটো রিক্সা -অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের ব্রাহ্মণপাড়া শাখার সাধারন সস্পাদক আমি ১৪২৬ বাংলা সনের ইজারাদার ১৪২৭বাংলা সনের উপজেলা প্রশাসন ঘোষিত বিজ্ঞপ্তীর ১১ নাম্বার নির্দেশনা মোতাবেক আমি শ্রম দপ্তর থেকে রেজিষ্ট্রেশন প্রাপ্ত কুমিল্লা জেলা অটো রিক্সা -অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন ব্রাক্ষনপাড়া শাখার সাধারন সস্পাদক বৈধ সংগটক হিসেবে ইজারা অংশ গ্রহন করেছি ,প্রসাশন আইন গত ভাবে আমাকে ইজারা দিতে হয়।আইনগত বিষয়গুলি প্রশাসনের মাধ্যমে মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে সেখান থেকে যে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয় আমি মেনে নিতে বাধ্য হব । করোনার কারনে আমি ১৪২৬ বাংলার শেষের তিন মাস ইজারা আদায় করতে পারিনি তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে আমার ইজারার মেয়াদ ৬ মাসের বৃদ্ধি করার জন্য আবেদন করি,আবেদনের রিসিভ কপি আমার কাছে আছে ,আমাকে প্রশাসন নিষেধ করলে আমি ইজারা উঠাবনা।

আপনার মতামত লিখুন :