খোকসায় মন্ত্রীর মৃত্যু নিয়ে পোস্ট দিয়ে চাকরি হারালেন মসজিদের ইমাম

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার খোকসায় সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মৃত্যু নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়া চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে মসজিদের ইমামকে। চাকুরিচ্যুত হাফেজ বিল্লাল উপজেলার কমলাপুর মোল্লাপাড়া জামে মসজিদের পেশ ইমাম ছিলেন। সোমবার সকালে হাফেজ বিল্লাল হোসেনকে চাকরিচ্যুত করে মসজিদের পরিচালনা কমিটি। সোমবার বিকেলে চাকরিচ্যুতের ঘটনাটি স্বীকার করেন মসজিদটির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুন্সী আরিফুল কবীর। তিনি বলেন, ফেসবুকে দেশের দুজন মন্ত্রীর মৃত্যু নিয়ে পোস্ট দিয়েছিলেন ইমাম সাহেব। পরে কে বা কারা সেটি থানায় জানালে ওসিসাহেব তাকে সতর্ক করে দেন বিষয়টি মসজিদ কমিটির উপর ছেড়ে দেন। তারপর সবকিছু বিচার-বিশ্লেষণ করে তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়। তবে এ ব্যাপারে তিনি কোনো নিউজ না করতেও এই প্রতিবেদককে অনুরোধ করেন। দুই বিশিষ্ট ব্যক্তির মৃত্যু নিয়ে হাফেজ বিল্লাল হোসেনের দেওয়া স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো- “কালের বিবর্তনে কি না হয়? উইকেটের পতন শুরু হয়ে গেছে। গতকাল একই দিনে দুই মন্ত্রীর বিদায়।

একজন সাবেক আরেকজন চলমান। নাসিমের পরেই ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর ইন্তেকাল।” এ ব্যাপারে ওই ইমামের সঙ্গে কথা বলা হয়। তিনি বলেন, আমি ফেসবুকে একটি পোস্ট দিলে আমাকে থানায় ডাকা হয়। থানা থেকে আমাকে গালিগালাজ করে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেন। তবে ওসিসাহেব এমন পোস্ট ভবিষতে না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। পোস্টটিতে মৃত ব্যক্তিকে নিয়ে কটুক্তি করা হয়েছে কী না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আসলে আমরা সাধারণ মানুষ। আমাদের বাক-স্বাধীনতা আছে। আর আমি তাদের নিয়ে কটুক্তি করেছি- এমন কিন্তু পোস্টটি বলে না। এটি আমার বিরুদ্ধে একটি মহলের চক্রান্ত। এ ব্যাপারে খোকসা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জহুরুল আলম বলেন, আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ দেয়নি। আমরা তাকে (ইমাম) থানায় ডেকে তার কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। যাতে এ ধরনের কাজ ভবিষতে না করে। আর চাকরিচ্যুতির ব্যাপারে আমি কিছু জানি না। এটা মসজিদ কমিটির ব্যাপার।

 

আপনার মতামত লিখুন :