ঘর দৃশ্যমান তবুও পোড়ানো মামলা মঠবাড়িয়ায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

মঠবাড়িয়া,পিরোজপুর প্রতিনিধি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে মালেক সিকদার (৪৮) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সদস্য ওই মালেক সিকদার একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রাম বাসিদের হয়রানী করে আসছে। এ হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সোমবার সকালে মঠবাড়িয়া রিপোটার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে মূক্তিযোদ্ধা পরিবার। ভুক্তভুগী পরিবারের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, ভেচকি গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মৃত লিয়াকত সিকদারের স্ত্রী পারুল বেগম (৬২)। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ইউপি সদস্য মো. বাবুল হাওলাদার, মাহমুদা বেগম, মো. আলামিন, লাইজু বেগমসহ অনেকে। মুক্তি যোদ্ধার স্ত্রী পারুল বেগম লিখিত বক্তব্যে বলেন, প্রতিবেশী স্বাধীনতা বিরোধী মৃত. আজিজ সিকদারের ছেলে মালেক সিকদারের সাথে এলাকার অনেক মানুষের দ্বন্দ। মালেক সিকদার সম্প্রতি তাদের বিরুদ্ধে আদালতে ও মঠবাড়িয়া থানায় পৃথক মামলা করে। মামলাগুলো তদন্তাধীন রয়েছে। এতে কোন সুবিধা আসবেনা ভেবে চক্রান্ত করে গত রোববার (৬ সেপ্টম্বর) গোয়াল ঘর ও বসত ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়ার নাটক সাজিয়ে আমার ছেলেসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা করে। মামলায় দেখানো হয়েছে একটি গরু পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে ও বসত ঘরেরের বারান্দায় থাকা নগদ টাকা পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। প্রকৃত পক্ষে ওই গরুটি ঘটনার আগের দিন অসুস্থ হয়ে মারা গেছে। বসত ঘরে কিংবা বসত ঘরের বারান্দায় আগুন লাগার কোন ঘটনা ঘটেনি। যাহা সম্পর্ণ অক্ষত ও দৃশ্যমান। আমাদের অহেতুক হয়রানির জন্য মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আমার অহেতুক হয়রানি থেকে বাঁচতে সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এ মামলার বিষয়ে মালেক সিকদারের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তিনি ফোন ধরেনি। মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আ,জ,মো.মাসুদুজ্জামান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

আপনার মতামত লিখুন :