চট্টগ্রাম হালিশহর ধুমপাড়া বস্তিঘরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মা-মেয়ে মৃত্যু

চট্টগ্রাম অফিস
চট্টগ্রাম দক্ষিণ মধ্যম হালিশহর ধুমপাড়া বস্তিতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে মা মেয়ের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে চারজন। গত ২৩শে জুলাই সন্ধ্যা ৭.৪০টায় দিকে নগরীর ম্যধম হালিশহর ধুম পাড়ায় রেল বিট বস্তি ঘরে ভয়াবহ এই অগ্নি কান্ড ঘটে। ঘটনার খবর পেয়ে ইপিজেড ফরার সার্ভিস এর নয়টি ইউনিট দমকল বাহিনী বন্দর থানা পুলিশ, র‌্যাব ঘটনা স্থালে ছুটে যায়।

এক ঘন্টায় স্থায়ী ও অগ্নিকান্ডে একই পরিবারের মা শিউলি বেগম (৩৫) ও সাড়ে ছয় বছরের লামিয়ার অগ্নিদগ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে বন্দর থানা-পুলিশ। জানাযায়, তাদের গ্রামের বাড়ী পিরোজ পুর জেলার শ্বরুপ কাঠি থানার সারেং কাঠি গ্রামে। ঘটনার সময় হতদরিদ্র রিক্সা চালক শিউলির স্বামী কালু মিয়া আগুনের লেলিহান খেলে স্ত্রী সন্তানকে বাচাঁনোর জন্য শত চেষ্টায় ব্যার্থ হয়ে হাউমাউ করে কাঁদতে থাকে।

ঘটনা স্থলে ফায়ার সার্ভিস এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ভয়াবহ এই অগ্নিকান্ডে ৪টি দোকানঘর ৯টি বস্তি ঘর পুড়ে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়। সরেজমিনে জানা যায়, কিছু অসাধু ব্যক্তিরা রেল বিটের জায়গা দখল করে অবৈধ ভাবে গড়ে ওটা এইসব বস্তির মালিক তারা প্রতি মাসে বসবাসের অনুপযগী এই সব ঘর বাড়ী থেকে মোটা অংকের ভাড়া আদায় করে আসছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান মর্হূতের মধ্যে গ্যাস বিস্ফোরণের আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। ঘরের মধ্যে থাকা মা-মেয়েকে বাঁচানোর জন্য বন্দর থানার ফড়িইনচার্জ আব্দুর রহিম ও এলাকাবাসিসহ শত চেষ্টা করলেও তারা ব্যার্থ হয়। মাহাবুব নামে এক প্রত্যক্ষ দর্শি জানান এই এলাকায় প্রভাবশালীদের ছত্র ছায়ায় ঝুঁকিপূর্ণ এই সব এলাকায় গড়ে উঠেছে পাঁচ শতাধিক দোকান পাট।

যাদের কারণে খেটে খাওয়া সাধারণ শ্রমিকরা এখানে বসবাস করে। প্রায় সময় এখানে আগুন লাগে। তাছাড়া উক্ত বস্তিগুলোতে মাদক আসর, জোয়া-খেলা, অসামাজিক কার্যক্রম প্রতিনিয়ত চলছে। প্রশাসন এই সব বিষয় নিরব দর্শকের ভুমিকা রাখছে বলে এলাকাবাসী জানান।

আপনার মতামত লিখুন :