চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভবন নির্মাণে নিয়মনীতি উপেক্ষার অভিযোগ

মো: আশরাফুল আলম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

ভবন নির্মানের আগে পৌরসভা থেকে নকশা অনুমোদনের প্রয়োজন পড়লেও চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় এসব নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করেই যেন অপরিকল্পিতভাবে ভবন তৈরীতে মত্ত অনেকেই। আর এ কারনে অনেক সময়ই পাড়া-মহল্লায় প্রতিবেশীর সাথে একে অন্যের বিরোধের ঘটনা। তবে পৌরসভার উদ্যোগে এ বিষয়ে নিয়মিত সচেতনামূলক কার্যক্রম চালালে ও নিয়মিত তদারকি করলে নাগরিক সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। সম্প্রতি গৃহনির্মানের সময় জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার নামোশংকরবাটি ভবানীপুর-মোন্নাপাড়া মহল্লায়। এনিয়ে পৌর কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগ করেও সমাধান না পাননি ভুক্তভোগী পরিবার। ভবানীপুর-মোন্নাপাড়া মহল্লার আব্দুল খালেক বিশুর বাড়িসহ ৫ কাঠা জমির পাশে পৌরসভার কোন নিয়ম-নীতি তোয়াক্কা না করেই দোতলা বাড়ি নির্মাণ করছেন, মৃত ইউসোফ আলীর ছেলে প্রবাসী রাজু আহমেদ। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিবেশী রাজু আহমেদ জায়গা না ছেড়ে দ্বিতল ভবন নির্মাণ করছে। উল্টো রাজু আহমেদের পরিবারের লোকজন অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মামলা হামলার হুমকি দিচ্ছে। এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলরকে অবহিত করা হলেও কোন ব্যবস্থা নেননি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে পৌর প্রতিনিধি আতিকুর রহমান ভবনটি পরিদর্শন করেন। তিনি জানান, ১০ বছর আগের পৌরসভার নকশা অনুমোদন সাপেক্ষে ভবনটি নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে সে সময়ের নিয়মানুযায়ী দেড় ফিট জায়গা ছেড়ে বাড়ি নির্মাণের কথা থাকলেও ছেড়েছে মাত্র ৯ ইঞ্চি। পৌরসভায় উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান করা হবে বলে জানান তিনি। রাজু আহমেদের স্ত্রী ফাতেমা খাতুন জায়গা না ছাড়ার বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, ১০ বছর আগে নিচতলা করার সময় তারা বাধা দেয়নি, তাই সেভাবেই নির্মাণ করা হচ্ছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেন পিন্টু জানান, পৌর কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে বিরোধ নিষ্পত্তির চেষ্টা করা হচ্ছে। এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার শহর পরিকল্পনাবিদ ইমরান হোসেন জানান, এ ধরনের অভিযোগ ভুক্তভোগির কাছ থেকে পাওয়া গেছে। শুনানীর মাধ্যমে নিস্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

 

 

আপনার মতামত লিখুন :