তামিম-শান্ত-মুমিনুল ঝলকে রান পাহাড়ের পথে টাইগাররা

পাল্লেকেলের আজকের দিনটা বড়ই পয়া টাইগারদের জন্য। একে একে হাসল তিন ব্যাটসম্যানের হাতের ব্যাট। তামিম ইকবাল-মুমিনুল হকের জোড়া অর্ধ-শতকের সঙ্গে মিলল নাজমুল হোসেন শান্তর অসাধারণ এক সেঞ্চুরি দেখা। ত্রয়ীর ব্যাটিং দাপটে বড় সংগ্রহের পথেই হাঁটছে বাংলাদেশ। টস জিতে শুরুতে ব্যাট হাতে প্রথম দিন শেষে সফরকারীদের পুঁজি দাঁড়িয়েছে ২ উইকেটে ৩০২ রান। তামিম অনুশীলন ম্যাচেই দেখিয়ে ছিলেন ব্যাটিং ঝলক। হাফ-সেঞ্চুরিতে জানান দিয়েছিলেন লাল-বলের ক্রিকেটের জন্য তিনি শতভাগ প্রস্তুত। গা গরমের ম্যাচের চমৎকার ফর্মটা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টেও বইয়ে নিয়ে এলেন। নিজেকে ফের প্রমাণ করে উপহার দিলেন নান্দনিক ব্যাটিং পারফরম্যান্স। তবে আক্ষেপ কাঙ্ক্ষিত সেঞ্চুরি হাতছানি দিয়েও ধরা দিলো না দেশ সেরা এ ওপেনারের হাতে। নাভার্স নাইনটিতে বিশ্ব ফার্নান্ডোর বলে লাহিরু থিরিমান্নের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন তামিম। ১০১ বলে ১৫ বাউন্ডারিতে তারকা ক্রিকেটার বিদায় নেন ৯০ রান নিয়ে। তবে বিদেশের মাটিতে প্রায় ১২ বছর পর দ্বিতীয় উইকেটে শতরানের পার্টনারশিপ গড়েছেন তামিম-শান্ত। দুজনে মিলে যোগ করেন ১৪৪ রান।

দুরন্ত ব্যাটিং পারফরম্যান্স দেখিয়েও সেঞ্চুরির দেখা পাননি তামিম ইকবাল। তামিম শতক মিস করলেও একই ভুল করেননি শান্ত। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ব্যাট হাতে অশান্তই থেকে গেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ব্যাটিং ঝড় তুলে রীতিমতো দুরন্ত এক শতক আদায় করে নিয়েছেন টপ অর্ডার এ ব্যাটসম্যান। পেয়েছেন টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির দেখা।২৮৮ বল খরচায় ১৪ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ১২৬* রান তুলে ব্যাট চালিয়ে যাচ্ছেন ওয়ানডাউনে নামা শান্ত। ক্রিজে তাকে সঙ্গ দিয়ে যাচ্ছেন মুমিনুল হক। টাইগার ক্যাপ্টেনও হাফ-সেঞ্চুরি করে এখন হাঁটছেন সেঞ্চুরির ছোঁয়ার লক্ষ্যে। ১৫০ বলে ৬ বাউন্ডারিতে তার সংগ্রহ ৬৪* রান।  ব্যতিক্রম কেবল সাইফ হাসান। নানার দেশে এদিন ব্যাট হাতে একেবারে ম্লান সাইফ হাসান। দলীয় ৮ রানে বিদায় নিলেও ৬ বল মোকাবেলা করে রানের খাতা খুলতে পারেননি এ ওপেনার। বিশ্ব ফার্নান্ডোর বলে এলবিডব্লিউ’র শিকার হন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: প্রথম দিন শেষে 

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৩০২/২, ৯০ (শান্ত ১২৬* ব্যাটিং, তামিম ৯০ ও মুমিনুল ৬৪* ব্যাটিং; বিশ্ব ফার্নান্ডো ২/৬১)।

আপনার মতামত লিখুন :