তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় বিড়ির চালান আটক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর সীমান্ত দিয়ে লক্ষলক্ষ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে পাচাঁর করা হচ্ছে কয়লা, চাল, পাথর, কাঠ, বিড়ি, গরু ও মাদকদ্রব্য। চোরাচালানীদের পাচাঁরকৃত ভারতীয় নাসির উদ্দিন বিড়ির চালান আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত অবৈধ বিড়ির মূল্য ১লক্ষ ৫৯হাজার টাকা। এঘটনার প্রেক্ষিতে গতকাল শুক্রবার দুপুরে ৪ চোরাচালানীর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অন্যদিকে ভারতের ভিতরে কয়লার কাজ করতে গিয়ে এক শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা ধামাচাপা দেওয়া চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- প্রতিদিনের মতো গত বুধবার (৩১শে মার্চ) রাতে তাহিরপুর উপজেলার লাউড়গড় সীমান্ত এলাকা দিয়ে বিজিবির সোর্স পরিচয়ধারী নুরু মিয়া,আমিনুল ইসলাম,নবীকুল ওরফে রফিক মিয়া, জসিম মিয়াগং অবৈধভাবে ভারত থেকে নাসিরউদ্দিন বিডি পাচাঁর করে। পরে পাচারকৃত বিড়ি ক্রয় করে অবৈধ বিড়ি ব্যবসায়ী উপজেলার বালিজুরী পুরাগাঁও গ্রামের নাসির উদ্দিন, মেঞ্জারগাঁও গ্রামের মেরাজুল ইসলাম ও তার ভাই সোহাগ মিয়া। এরপর পাচাঁরকৃত বিড়ি নাসির উদ্দিনের বালিজুরীর বাড়িতে নিয়ে মজুত করে। এই খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাড়ির ভিতর থেকে ভারতীয় বিডির চালান আটক করে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বিডি ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। অন্যদিকে বুধবার (৩১শে মার্চ) সকালে চারাগাঁও সীমান্তের লালঘাট এলাকা দিয়ে সোর্স শফিকুল ইসলাম ভৈরব ও রমজান মিয়ার নেতৃত্বে ভারতের লংজুড়ি নামকস্থানে কয়লার কাজ করার সময় শ্রমিক রমজান মিয়ার মাথা পাথর পড়ে। এঘটনায় শ্রমিক রমজান মিয়ার মাথা থেতলে যাওয়ায় ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে মৃত শ্রমিককে লুকিয়ে বাংলাদেশ আনে সোর্সরা। এরপর মোটর সাইকেল চালানো শিখতে গিয়ে শ্রমিক রমজানের মৃত্যু হয়েছে বলে ধামাপাচা দিয়ে ময়না তদন্ত ছাড়াই দাফন করা হয়েছে বলে জানা গেছে। শ্রমিক রমজান মিয়া (৩৫) উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের লালঘাট-গুচ্ছ গ্রামের আলমাছ মিয়ার ছেলে। এব্যাপারে উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সহ-সভাপতি গুলেনুর মিয়া বলেন- হাসান আলী মেম্বার, সোর্স শফিকুল, রমজান ও ক্যাম্পের এফএস আফসার সিন্ডিকেড তৈরি করে রাজস্ব ফাকি দিয়ে ভারত থেকে কয়লা ও চাল পাচাঁর করছে। তাদের জন্য কয়লা আনতে গিয়ে শ্রমিক রমজানের মৃত্যু হয়েছে। এব্যাপারে তাহিরপুর থানার ওসি আব্দুল লতিফ তরফদার সাংবাদিকদের বলেন- কয়লা শ্রমিকের মৃত্যুর বিষয়ে খোঁজ নিয়ে দেখব, আর অবৈধ বিড়ি ব্যবসার সাথে জড়িত লাউড়গড় গ্রামের রফিক মিয়ার ছেলে ইকবাল হোসেনসহ মোট ৪জনকে পলাতক আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :