দ্বৈত ভোটার হওয়ার অপরাধে দম্পত্তির বিরুদ্ধে চার্জশীট

বগুড়া প্রতিনিধি

জন্ম তারিখ ও এলাকা পরিবর্তন করে দ্বৈত ভোটার হওয়ার অপরাধে বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল উত্তরপাড়ার পলাশ মাহবুব পিন্টু দম্পতির বিরুদ্ধে সদর থানায় দায়েরকৃত মামলার তদন্ত শেষে আসামীর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় বিচারের নিমিত্তে বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। বগুড়া সদর থানার এস আই (নিরস্ত্র) মো: গোলাম মোস্তফা সম্প্রতি এই অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের নির্দেশক্রমে গত গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রেজিষ্ট্রেশন অফিসার এএসএম জাকির হোসেন গত ৩১ ডিসেম্বর মামলাটি দায়ের করেছিলেন। বর্তমানে মামলাটি জেলা বগুড়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে বিচারাধিন রয়েছে। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, পলাশ মাহবুব পিন্টু ও তার স্ত্রী মহসিনা আকতার অসৎ উদ্দেশ্যে বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল ও পৌরসভার মালতীনগর এলাকায় পৃথক দুটি ঠিকানা ব্যবহার করে ও নিজেদের জন্ম তারিখ পরিবর্তন করে দ্বৈত ভোটার হয়েছেন যা দন্ডবিধি ৪২০ ধারা ও ভোটার তালিকা আইন ২০০৯ এর ১৮ ধারা অনুসারে ফৌজদারি অপরাধ। মামলা দায়েরের পর বগুড়া সদর থানার এস আই গোলাম মোস্তফা ঘটনাটি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করছে গত ২৮ ফেব্রুয়ারী অভিযোগপত্র দাখিল করেন। চার্জশীটে তদন্তকারী কর্মকর্তা উল্লেখ করেছেন, পলাশ মাহবুব পিন্টু দম্পতি অসৎ উদ্দেশ্যে নিজেদের স্ব-স্ব জন্মস্থান ও জন্ম তারিখের তথ্য গোপন করে দ্বৈত ভোটার হয়েছেন। এ ব্যাপারে পলাশ মাহবুব পিন্টুর সাথে সেল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, দ্বৈত ভোটার হওয়ার ক্ষেত্রে তাদের অসৎ কোন উদ্দেশ্যে ছিল না। তবে কি কারনে ওই স্বামী-স্ত্রী যৌথভাবে দ্বৈত ভোটার হয়েছেন তার কোন সদুত্তর তারা দিতে পারেননি।

 

আপনার মতামত লিখুন :