নারায়ণগঞ্জে গলায় ফাঁস লঅঈাগিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে শিরিনা আক্তার(৩০) নামে এক গৃহবধূূ গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেছে। ১৫ নভেম্বর রবিবার রাতে দেওয়ানবাগ ছোটবাগ এলাকার প্রবাসী আবুল হাশেম মিয়ার ভাড়াটিয়া বাড়ি থেকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শিরিনা আক্তার ছোটবাগ এলাকার মৃত শওকত আলীর মেয়ে ও কেওঢালা এলাকার মোঃ জাহাঙ্গীরের দ্বিতীয় স্ত্রী। এলাকাবাসী জানান, দুই বছর আগে শিরিনা আক্তার দুই সন্তান রেখে প্রথম স্বামীকে ছেড়ে দিয়ে কেওঢালা গ্রামের ব্যবসায়ী মোঃ জাহাঙ্গীরের সঙ্গে দ্বিতীয় বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে শিরিনা নিজ এলাকায় প্রবাসী আবুল হাশেম মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকতো। জাহাঙ্গীরের প্রথম সংসারে যাওয়া আসা নিয়ে দুইজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। এরই জের ধরে রবিবার সন্ধ্যার পর নিজ কক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করে। রাত ৮ টার দিকে আশপাশের বাড়ির লোকজন রুম অন্ধকার দেখে জানালা দিয়ে উকি দিয়ে ঝুলন্ত লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিল্ডিংয়ের দরজা ভেঙ্গে লাশ উদ্ধার করে। উদ্ধার। বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফখরুদ্দীন ভূঁইয়া জানান, ওড়না দিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে রাতেই মর্গে পাঠিয়ে দেয়া হয়। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যূ মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

আপনার মতামত লিখুন :