নোয়াখালীতে চাঞ্চল্যকর সাইমুন হত্যার প্রধান আসামী গ্রেফতার

বেগমগঞ্জ,নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালী সোনাইমুড়ীতে সেই আলোচিত সাইমুন হত্যার প্রধান আসামী মীর হোসেন মিরা (২০) কে গ্রেফতার করেছে সোনইমুড়ী থানা পুলিশ।বুধবার ভোররাতে মোবাইল ট্যাকিং এর মাধ্যমে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে হানা দিয়ে অবশেষে মোহাম্মদবাগের বাসা রাত ৩ টায় দিকে তাকে আটক করতে সক্ষম হয়।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই ফারুক হোসাইন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে এ অভিযান পরিচালনা করেন।গ্রেফতারকৃত মীর হোসেন মিরাকে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকারোক্তি মোতাবেক হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ১টি আধুনিক ছুরি তার উপস্থিতিতে আলোকপাড়ার ঘটনাস্থল থেকে ২ শত ফুট দক্ষিণে রেলওয়ে ব্রিজের নিচ থেকে উদ্ধার করা হয়।সাইমুন হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে এর আগে এলাকাবাসী বেশ কয়েকবার মিছিল ও মানব বন্ধন করে।এই সময়ে অনেকে নিহত সাইমুনের কথা বলতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়ে।

গ্রেফতারকৃত মীর হোসেন সোনাইমুড়ী পৌরসভা ৫ নং ওয়ার্ড আলোকপাড়া আশরাফ আলী ব্যাপারী বাড়ির এছাক মিয়ার একমাত্র ছেলে।উল্লেখ্য, গত ৯জুন বিকেলে ফুটবল খেলার মাঠে আলোকপাড়া গ্রামের আশরাফ আলী ব্যপারী বাড়ির এছাক মিয়ার ছেলে মীর হোসেন মিরার সাথে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র কওে একই গ্রামের শিমুলের তর্কবিতর্ক হয়।মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে শিমুল তার ছোট ভাই সাইমুনকে নিয়ে সোনাইমুড়ী বাজারের উদ্দেশ্য রওনা হয়।এক পর্যায়ে শিমুলের বড় ভাই সাইমুন এগিয়ে এলে তাকে উপর্যপুরি ছুরিকাঘাতে মারাত্মক আহত হয়।স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।এ ঘটনায় সাইমুনের বাবা সামছু উদ্দিন বাদী হয়ে মীর হোসেন মিরাকে প্রধান আসামী করে আট জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনকে আসামী করে সোনাইমুড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।এ বিষয়ে সোনাইমুড়ী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জিসান আহমেদ আমাদের কন্ঠকে জানান,সাইমুন হত্যার সাথে জড়িত প্রধান আসামী মীর হোসেন মীরকে কয়েকদিন থেকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা থেকে তাঁকে আটক করা হয়।বাকী আসামীদেরকেও অতি শীঘ্রই আইনের আওতায় আনা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :