পাবনা’য় নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ১০টি ড্রেজার ধ্বংস: গ্রেফতার ৩

পাবনা পতিনিধি

পাবনার সুজানগরে পদ্মা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় সোমবার (১৪’সেপ্টেম্বর) দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতে বিশেষ অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে ১০টি ড্রেজার ধ্বংস করা হয়। এ সময় বালু উত্তোলন ও সরবরাহের অপরাধে আরও ৩ জনকে প্রেফতার করা হয়। প্রেফতারকৃতরা হলো ফরিদপুর জেলার গুরদিয়া গ্রামের ওমর আলী (৪০), বোয়ালমারী গ্রামের বিল্লাল হোসেন (২৫) ও রাজবাড়ী জেলার ওরাকান্দা গ্রামের স্বপন হোসেন (২৬)। সুজানগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যনান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রওশন আলী’র নেতৃত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. বায়েজীদ বিন আখন্দ ও মো. নাজমুস সাদাত, সাধারণ পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও আনসার সদস্যবৃন্দ। দীর্ঘদিন যাবৎ সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে কিছু সংখ্যক অসাধু প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ী পদ্মা নদীর সাতবাড়ীয়া, নারুহাটি, তারাবাড়ীয়া, হাজার বিঘারচর, রাইপুর, নাজিরগঞ্জ, বড়খাপুর, হাসামপুর, মহনপুর, মহব্বতপুর ও কামারহাটসহ অন্তত ৩০টি পয়েন্ট থেকে অবৈধভাবে শক্তিশালী ড্রেজার দিয়ে লক্ষ লক্ষ ঘনফুট বালু উত্তোলন ও বিক্রি করে আসছিল। যার ফলে পরিবেশের ভারসাম্যহীনতা এবং পদ্মা নদীর পার্শবর্তী অসংখ্য বসতবাড়ি ও স্থাপনা নদী গর্ভে বিলিন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। এমন সংবাদের ভিক্তিতেই ভ্রাম্যমান আদালতে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে ১০ টি ড্রেজার ধ্বংস এবং ৩ জনকে প্রেফতার করা হয়। প্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে বালু ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে মামলা দিয়ে তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়। পদ্মা নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানানো হয়।

 

আপনার মতামত লিখুন :