ফরিদপুরে যারা আহলে হাদিস মসজিদ ভেঙ্গেছে তাদের কোন ধর্ম নেই, তারা সন্ত্রাসী- মুফতি মুনীর উদ্দিন

খুলনা ব্যুরো

ফরিদপুরে যেসকল দুর্বৃত্তরা আহলে হাদিস মসজিদ ভেঙ্গেছে তাদের কোন ধর্ম নেই। তারা ভারতের মুদির অনুসারী। মুদি সরকার ভারতে মুসলমানদের বাবরী মসজিদ ভেঙ্গে যেমন সন্ত্রাসী কর্মকা- করেছে অনুরুপ ভাবে বাংলাদেশে যারা মসজিদ ভাংচুরে জড়িত নিঃসন্দেহে তারাও সন্ত্রাসী পরিচয় বহন করেছে। তারা এ ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়ে জাতিসংঘ সনদ, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার ও বাংলাদেশ সংবিধান লংঘন করেছে। এমন বর্বরোচিত হামলার ঘটনা স্বাধীন ও গণতান্ত্রিক দেশে কোনভাবেই কাম্য নয়। আমরা এই ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র দিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমাদের দেশে সকল ধর্ম ও মতের অনুসারীদের নিজ নিজ ধর্ম পালনের অধিকার দেওয়া হয়েছে।

সে প্রেক্ষিতে আমরা সবসময় সহাবস্থানে বিশ্বাসী। গতকাল শুক্রবার জুমআর নামাজ শেষে বাংলাদেশ আহলে হাদীস তাবলীগে ইসলাম খুলনা শাখার আয়োজনে সম্প্রতি ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলাধীন ভাওয়াল ইউনিয়নের কামদিয়া গ্রামে কওমীপন্থী উচ্ছৃংখল ছাত্র ও জনতা কর্তৃক নবনির্মিত আহলেহাদিস মসজিদ ও মাদরাসায় হামলা, ভাঙচুরের ঘটনার প্রতিবাদ সমাবেশে খুলনা জেলা আমীর শেখ আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথীর বক্তব্যে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় আমীর মুফতি মুনীর উদ্দিন এসব কথা বলেন। এসময় তিনি ধর্মীয় স্বাধীনতা রক্ষায় প্রশাসন কে নিরপেক্ষ ও ন্যায়ানুগ ভূমিকা পালন ও মসজিদে হামলার সাথে জড়িতদের ফুটেজ দেখে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতারের দাবী জানান। অন্যথায় শান্তিপূর্ণ ভাবে কঠিন কর্মসূচি নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারী করেন তিনি। জেলা সহ. আমীর আনিসুর রহমানের সঞ্চালনায় অন্যন্যদের মাঝে আর ও বক্তব্য রাখেন ,সেক্রটারী অধ্যাপক শোয়াইব রুমী, অ্যাডভোকেট পলাশ মাহমুদ,আব্দুস সালাম জুম্মান,শেখ জামাল, ছাত্র তাবলীগের সভাপতি সাইদ বিন মুনীর, মুহিবুল্লাহ আল জিহাদ প্রমূখ।

আপনার মতামত লিখুন :