মধ্যপাড়া পাথর খনিতে ১২ জুলাই পর্যন্ত শ্রমিকদের আন্দোলন স্থগিত বকেয়া বেতন ভাতা’র দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

মাহফিজুল ইসলাম রিপনঃ

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বকেয়া বেতন, ঈদ বোনাস প্রদান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাথর উৎপাদন শুরু করাসহ ৬ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে মধ্যপাড়া পাথর খনির ৮শতাধিক শ্রমিক। গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় খনি গেটের সামনে অবস্থান নিয়ে ঘন্টাব্যাপি কর্মসূচি পালন করেন তারা। এসময় মিঠাপুকুর- পার্বতীপুর মহাসড়কে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ থাকে। আগামী ১২ জুলাইয়ের মধ্যে দাবি আদায় না হলে ১৩ তারিখ থেকে লাগাতার কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুশিয়ারী দেন শ্রমিক নেতারা।
জানা যায়, মধ্যপাড়া পাথর খনিতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জার্মানিয়া ট্রেষ্ট কনসোর্টিয়ামের (জিটিসি) আওতায় খনির অভ্যন্তরে কাজ করেন ৮ শতাধিক বাংলাদেশি শ্রমিক। করোনাকালীন সময়ে সরকার ঘোষিত লক ডাউনের কারণে যথা সময়ে বেতন ভাতা প্রদানের প্রতিশ্রæতি দিয়ে শ্রমিকদের ছুটিতে পাঠান ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি। তবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান গত তিন মাসের (এপ্রিল, মে এবং জুন) বেতন ও ঈদ বোনাস না দেয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন শ্রমিকরা।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২২ জুন খনি গেটের সামনে অবরোধ কর্মসূচি পালন শেষে মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানীর ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জার্মানিয়া ট্রাস্ট কনসোর্টিয়ামের (জিটিসি) ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে এক স্মারকলিপি প্রদান করেন শ্রমিক নেতারা। সেই সাথে ৩০ জুনের মধ্যে পাওনা পরিশোধের জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে আল্টিমেটাম দেন শ্রমিকরা। তবে শ্রমিকদের ৬ দাফা বাস্তবায়ন না হওয়ায় বুধবার সকাল থেকে আবারও দাবি আদায়ের লক্ষ্যে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন। এতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি খোরশেদ আলম, সাধারন সম্পাদক গোলাম কিবরিয়াসহ অন্যান্য শ্রমিকরা। আগামী ১২ জুলাই’র মধ্যে দাবি আদায় না হলে লাগাতার অবরোধ কর্মসূচির আল্টিমেটাম দিয়েছেন শ্রমিকরা।
এ বিষয়ে মধ্যপাড়া পাথর খনির ব্যাবস্থাপনা পরিচালক এ বি এম কামরুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে বলেন, ইতিমধ্যে খনি কর্তৃপক্ষের সাথে শ্রমিকদের কথা হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি’র সাথে আলোচনা করে দ্রæত সময়ের মধ্যে তাদের পাওনা পরিশোধের পাশাপাশি কাজে যোগদানের ব্যবস্থা করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :