মাঝ নদীতে স্বজনদের আহাজারি

স্টাফ রিপোর্টার

 

সদরঘাটে লঞ্চডুবির ঘটনায় একের পর এক মরদেহ উদ্ধার করছেন উদ্ধারকারীরা। মাঝ নদীতে নৌযানে সারি করে রাখা হচ্ছে মরদেহগুলো। প্রিয় মানুষের মৃত্যুতে ধৈর্য আর বাধ মানছে না স্বজনদের। নৌকা নিয়ে ছুটে যাচ্ছেন মাঝ নদীতে সারি করে রাখা মরদেহের কাছে। বুকভাঙা কান্নার কাছে নিজেদের সঁপে দিচ্ছেন প্রিয়হারা স্বজন।

দেখা গেছে, ফায়ার সার্ভিস, নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, নৌপুলিশ, র্যাবের সদস্যরা যৌথভাবে উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। ১৬ জন ডুবুরি ক্লান্তিহীন উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

jagonews24

মরদেহ রাখা নৌযানের চারপাশে নৌকা ভাড়া করে ভিড় করছেন স্বজনরা। তাদের কান্নায় ভারী হয়ে উঠেছে বুড়িগঙ্গার আকাশ-বাতাস।

এর আগে সকাল ১০টায় এ লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঢাকা-চাঁদপুর রুটের ময়ূর-২ নামের একটি লঞ্চের ধাক্কায় কমপক্ষে ৫০ যাত্রী নিয়ে ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ রুটের মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়।

jagonews24

স্থানীয়রা আরও জানান, মুন্সিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা দুইতলা মর্নিং বার্ড লঞ্চটি সদরঘাট কাঠপট্টি ঘাটে ভেড়ানোর আগ মুহূর্তে চাঁদপুরগামী ময়ূর-২ লঞ্চটি ধাক্কা দেয়। এতে সঙ্গে সঙ্গে তুলনামূলক ছোট মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়।

আপনার মতামত লিখুন :