মুন্সীগঞ্জের ছেলের হাতে মা খুন

টঙ্গীবাড়ী,মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি

মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ীতে মানুষিক ভারসাম্যহীন ছেলে বটি দিয়ে কুপিয়ে মাকে খুণ করেছে। এ সময় মাকে বাচাঁতে তার বড় খালা এগিয়ে আসলে তাকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়। পুলিশ ঘাতক ছেলে মানিক তালুকদারকে গ্রেফতার করছে। শুক্রবার বিকাল সারে ৩টার দিকে উপজেলার পুড়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানাগেছে, উপজেলার নেত্রাবর্তী গ্রামের দেলোয়ার তালুকদার এর মানুষিক ভারসাম্যহীন ছেলে মানিক তালুকদার (২৫) তার মা তাসলিমা বেগম (৫৫) ও খালা শামসুননাহার (৬০) এর সাথে কয়েকদিন আগে নিহতের নানা বাড়ি উপজেলার পুড়াপাড়া গ্রামের মৃত শামছুল হকের বাড়িতে বেড়াতে আসে। শুক্রবার বিকার সাড়ে ৩ টার দিকে নানা বাড়ির নির্জণ ঘরের মধ্যেই এলোপাথাড়িভাবে বটি দিয়ে তার মা তাসলিমা বেগমকে কুপাতে থাকে।

এ সময় তার খালা শামসুননাহার বোনকে বাচাঁতে এগিয়ে আসলে তাকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে ঘাতক মানিক। এ সময় তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে টঙ্গিবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মা তাসলিমা বেগমকে মৃত ঘোষনা করেন এবং গুরুতর আহত খালা শামসুননাহারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। স্থাণীয়রা জানান, দিন মজুর দেলোয়ার তালুকদার এর ছেলে মানিক কয়েক বছর আগে প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে এলাকার এক গৃহবধূকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে ওই ঘটনায় একাধিক মামালা মোকদ্দমা হয় এবং ওই গৃহবধূও তাকে ছেড়ে চলে যায়। তারপর হতেই মানষিক ভারসাম্যহীন হয়ে পরে ঘাতক মানিক। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আচরন করে সে। কয়েকদিন আগেও সে নিজেই গলায় দড়ি দিয়ে অতœহত্যা করতে গিয়েছিলো। এ ব্যাপারে টঙ্গীবাড়ী থানা ওসি হারুন অর রশীদ বলেন, আমরা খবর পেয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে লাশ উদ্বার করি এবং ঘটানা স্থল হতে আসামিকে আটক করি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :