শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রীদের দুর্ভোগ: ড্রেজিং চ্যানেল পরিদর্শনে নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্টরা

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

দক্ষিন-পশ্চিমাঞ্চলের অন্যতম প্রবেশ পথ দেশের সকলের পরিচিত শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ী নৌ-রুটে আবারো ফের ফেরী চলাচল শুরু হয়েছে।নব্যতা সংকটের কারনে টানা ৮ দিন বন্ধ থাকার পড়ে শুক্রবার বিকেল পৌনে ৫ টায় ২ ঘন্টার জন্য ফেরী চলাচল করলেও তা আবার বন্ধ হয়ে যায়। এর পর রোববার সাড়ে ৯ টায় ঘোষনা দিয়েই বিআইডবিøউটিসি কর্তৃপক্ষ অনিদিষ্টকালের জন্য এ নৌ-রুটে ফেরী চলাচল বন্ধ করে দেওয়ার মাত্র ২ দিনের মাথায় মঙ্গলবার সোয়া ৯ টায় নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন চৌধুরী,অতিরিক্ত সচিব অনিলচন্দ্র রায় ও বিআইডবিøউটিএর চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক ও টিসির চেয়ারম্যান খাজা মিয়া,ড্রেজিং বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী আব্দুল মতিনসহ সংশ্লিষ্টরা প্রায় ২ ঘন্টা ব্যাপি এ নৌ-রুটের ড্রেজিং কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন আপাতত ২৮ কিলোমিটার পথ পালের চরের চ্যানেল দিয়ে ফেরী চলাচল করবে।

তবে আমরা চেষ্টা করছি লৌহজং টানিং দিয়ে ফেরী চলানো যায় কিনা। তবে আশা করছি বুধবার থেকে এ চ্যানেলটি দিয়ে ফেরী চলাচল শুরু করতে পারবে। এছাড়াও বিকল্প পথ হাজরা চ্যানেল চালু করারও পরিকল্পনা আছে তবে এটি অনেক সময় লাগবে। এদিকে নৌ-সচিবের ঘোষনার মাত্র ১ ঘন্টা পড়েই শিমুলিয়া ঘাট থেকে ক্যামিলিয়া নামের একটি কেটাইপ ফেরী পালের চরের চ্যানেল দিয়ে কাঠালবাড়ীর উদ্দ্যেশ্যে ছেড়ে যায় তবে এটি পৌছাতে প্রায় ৫ থেকে ৬ ঘন্টা সময় লাগবে বলে ফেরী মাষ্টাররা জানান।আর এটি ওপাড়ে পৌছালে ছোট ও অন্যন্য ফেরীগুলো চালু হবে বলে জানাযায়।এদিকে শিমুলিয়া ঘাটে দির্ঘদিন ধরে আটকে থাকা পরিবহন চালক ও শ্রমিক ও যাত্রীরা পড়েছেন চরম দূভোর্গ ও ভোগান্তিতে কবে নাগান এ ভোগান্তি শেষ হবে এর উত্তর জানা নেই কারো। তবে লঞ্চ ও সি-বোট চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে এ নৌ-রুটে।

 

আপনার মতামত লিখুন :