শেরপুরে আর্থিক সহায়তা ও হুইল চেয়ার পেলো ৩ প্রতিবন্ধী

শেরপুর প্রতিনিধি

বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশের পর নগদ ১০ হাজার টাকাসহ ২টি হুইল চেয়ার সহায়তা পেয়েছেন ৩ জন প্রতিবন্ধী। তারা হলেন শেরপুর শহরের চকপাঠক মহল্লার নওশেদ আলীর ছেলে অপু (২৭), কসবা কাঠগড় মহল্লার জুলহাস মিয়ার মেয়ে সাইমা (৮) এবং একই এলাকার মুন্নাফ মিয়ার প্রতিবন্ধী শিশু তাসফিয়া তাবাসসুম। আজ দুপুরে জেলা ডায়াবেটিক সমিতি প্রাঙ্গণে ওইসব হুইল চেয়ার ও নগদ ১০ হাজার টাকা তাদের হাতে তুলে দেন নকলা অদম্য মেধাবী সংস্থার নেতৃবৃন্দ। সহায়তা প্রদানকালে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার নুরুল ইসলাম হিরু, জেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি রাজিয়া সামাদ ডালিয়া, ডায়াবেটিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট ইমাম হোসেন ঠান্ডু, প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক মেরাজ উদ্দিন, নকলা অদম্য মেধাবী সংস্থার সভাপতি শফিকুল ইসলাম শফিক, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন, অনুদান বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর রউফ শিবলু প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক জাহিদুল খান সৌরভ। নকলা অদম্য মেধাবী সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন জানান, নকলা অদম্য মেধাবী সংস্থা অসহায় হতদরিদ্রদের মাঝে এ পর্যন্ত প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার অনুদান দিয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় গণমাধ্যমে কয়েকটা মানবিক খবর আমাদের নজরে আসে। এরপর নকলা অদম্য মেধাবী সংস্থার নির্বাহী পরিচালক অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী মোঃ আবু শরীফ কামরুজ্জামান, শেরপুর জেলা সমিতি (ইউএসএ) সভাপতি খন্দকার রউফ এবং দীপ্ত পথ যুব সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান খন্দকার রুমান শাহের পরামর্শে আমরা তাদের সহযোগিতা করার কার্যক্রম হাতে নেই। জেলা মানবাধিকার কমিশনের রাজিয়া সামাদ ডালিয়া বলেন, এর আগেও আছিয়া বেগমকে নিয়ে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন দেখে জেলা পুলিশ তাকে একটি ঘর করে দেয়। পাশাপাশি আমাদের পক্ষ থেকেও গত ২৬ মার্চ (স্বাধীনতা দিবসে) আছিয়ার জন্য নতুন খাট, লেপ, তোশকসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দেওয়া হয়। এবার নকলা অদম্য মেধাবী সংস্থা তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এটি মানবতার একটি উজ্জল দৃষ্টান্ত। এমন ধরনের কাজ-কর্ম চলতে থাকলে দেশ আরও এগিয়ে যাবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

আপনার মতামত লিখুন :