সাজানো মামলা পুলিশ কর্মকর্তাকে আদালতে তলব

মোঃ শাহিন চৌধুরী

সাজানো মামলা দায়েরে সহযোগিতার জন্য ঢাকার চকবাজার মডেল থানার এক কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে আদালত। অভিযোগ রয়েছে, উক্ত থানার তিন কর্মকর্তা রহস্যজনক কারনে বাদীকে মিথ্যা মামলা দায়েরে সহযোগিতা করেছে। নাটকীয় এ মামলায় একটি প্রতিষ্ঠানের তিন কর্মচারি গ্রেফতার হলেও দু’জন জামিনে রয়েছে। একজন এখনো রয়েছে কারা হাজতে। গত ১৫ অক্টোবর আাদালতে বিচারকের নজরে আসে উক্ত মামলার ১ নং ও ২ নং আসামির জামিন হয়েছে। কিন্তু একই অভিযোগের অপর আসামি এখনো কারা হাজতে রয়েছেন। এজাহার সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র পর্যালোচনার পরে ভুল এজাহারের কারনে ৩ নং আসামির জামিন না হওয়ার বিষয়টি আদালতের নজরে আসে। এরপর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চকবাজার থানার এসআই মাসুককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আজ ১৮ অক্টোবর আদালতে তলব করেন।
উল্লেখ্য, গত ১৮ সেপ্টেম্বর চকবাজারস্থ ৬/১ মৌলভীবাজার পারফেক্ট মসলা স্টোরের মালিক নজরুল ইসলাম তার তিন কর্মচারির বিরুদ্ধে মালামাল চুরির অভিযোগে চকবাজার থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলার সূত্র ধরে অপর একটি প্রতিষ্ঠান থেকে পুলিশ কিছু মালামাল জব্দ করেন। জব্দকৃত ওইসব মালামাল আমদানির সঠিক কাগজপত্র থাকলেও পুলিশ সেদিকে গুরুত্ব না দিয়ে কর্মচারিদের গ্রেপ্তার করে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নেয়া হয় রিমান্ডে।
এদিকে ভূক্তভোগী এবং চকবাজারের স্থানীয় ব্যবসায়ীদের দাবি, গ্রেপ্তারকৃতরা নজরুল ইসলামের স্টোরে চাকুরির পাশাপাশি নিজেরাও ব্যবসা করতেন। ওইসব কর্মচারিরা নতুন ব্যবসা শুরু করায় ক্ষিপ্ত হন নজরুল। তার ধারনা কর্মচারিরা ব্যবসা করলে তার ব্যবসায় ধ্বস নামতে পারে। এ আশঙ্কা থেকে কর্মচারিদের ঘায়েল করতেই পুলিশ কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে এহেন সাজানো মামলা করে।

 

 

আপনার মতামত লিখুন :