এডুকো কর্তৃক আয়োজিত আন্তঃ বিদ্যালয় পঠন ও লিখন প্রতিযোগিতা

গত ২৬মে ২০১৯,এডুকেশন এন্ডডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন-এডুকো কর্তৃক পরিচালিত এডুকো সেতু বন্ধন পাঠশালা চনপাড়া-এ বিদ্যালয়ে ৫টি বিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে এক আনন্দঘন পরিবেশে অনুষ্ঠিতহল আন্তঃবিদ্যালয় পঠন ও লিখন প্রতিযোগিতা।

শিক্ষার্থীদের মধ্যে দ্রুত ও সঠিক উচ্চারণে পড়ার দক্ষতা বৃদ্ধি, সুন্দর হাতের লেখা উন্নয়নে উৎসাহ প্রদান, নিজ থেকে বর্ণনামূলক লেখার অভ্যাস গঠন, মানসম্মত পড়া ও লেখা নিশ্চিতকরণে শিক্ষার্থী তথা অভিভাবকদের সম্পৃক্তকরণের জন্যই মূলত এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।


এইআন্তঃবিদ্যালয় পঠন-লিখন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে এডুকো সেতুবন্ধন পাঠশালা চনপাড়া-এ, এডুকো সেতুবন্ধন পাঠশালা চনপাড়া-বি, এডুকো পাঠশালা মেরাদিয়া, এডুকো পাঠশালা বাবুরজায়গা এবং এডুকো ওয়ার্কিং চিলড্রেন স্কুল শ্যামপুর বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা তাদের স্ব-স্ব বিদ্যালয়ে পঠন ও লিখন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়ে এই আন্তঃবিদ্যালয় পঠন ও লিখন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছে।

উক্ত প্রতিযোগিতায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পি.আর.ডি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ আসলাম, জনকল্যান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক জনাব আকতার হোসেন,সেতুবন্ধন-এর সভাপতি জনাব আব্দুললতিফ, যুব উন্নয়ণ অধিদপ্তরের ক্রেডিট সুপারভাইজার জনাব ফজরুল ইসলাম।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন এডুকো-এর প্রজেক্ট অফিসার জনাব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ও খাদিজা খাতুন,অংশগ্রহণকারী ৫টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, শিক্ষকবৃন্দ, অভিভাবকএবংএলাকার অন্যান্য গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ।


যুব উন্নয়ণ অধিদপ্তরের ক্রেডিট সুপারভাইজার জনাব ফজরুল ইসলাম বলেন, এ ধরনের প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহনের ফলে শিশুদের পঠন ওলিখনের প্রতি আগ্রহ আরো বাড়বে। তারা আরো আগ্রহ নিয়ে বই পড়বে, পাশাপাশি সুন্দর হাতের লেখা এবং সৃষ্টিশীল চিন্তায় আরো মনোযোগী হবে। যা অত্যন্ত জরুরী। এ ধরণের আয়োজনের জন্য তিনি এডুকোকে ধন্যবাদ জানান এবং পরবর্তীতে এমন আয়োজন করার জন্য উৎসাহিত করেন।

উপস্থিত পি.আর.ডি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ আসলাম এবং জনকল্যান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব আকতার হোসেন তাদের নিজ নিজ বক্তব্যে জানান, এমন চমৎকার আয়োজন সব বিদ্যালয়েই প্রয়োজন। ভবিষ্যতে তারা নিজেদের বিদ্যালয়ে এমন আয়োজন করবেন বলেও পরিকল্পনা করেন,পাশাপাশি উপস্থিত অন্যান্য বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, তারাও যাতে এডুকোকে অনুসরণ করে নিজেদের বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এমন আয়োজন করার চেষ্টা করেন।

এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের ফলে শিক্ষার্থীরাও অত্যন্ত আনন্দিত। এডুকো পাঠশালা মেরাদিয়া বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী জয়নাল আবেদীন জনী বলেন, এ প্রতিযোগিতা তার আত্মবিশ্বাসকে আরো বাড়িয়ে তুলেছে। তার অনেক ভালোলাগা কাজ করছে এখানে অংশগ্রহণ করার ফলে। উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতায় পঞ্চম শ্রেণির অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে জয়নাল আবেদীন জনী প্রথম স্থান অধিকার করেছেন।
প্রতিযোগিতা শেষে পুরষ্কার প্রদান পর্বে এডুকো-এর প্রজেক্ট অফিসার জনাব মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ও প্রজেক্ট অফিসার খাদিজা খাতুন উভয়ের বক্তব্যে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের উৎসাহ প্রদান করেন।সর্বোপরি, এডুকো বিশ্বাসকরেপাঠ্যবই-এরপাশাপাশিঅন্যান্যবই পড়ার মাধ্যমে শিশুর জ্ঞানের বিকাশ, সৃষ্টিশীল ও সুন্দর চিন্তার সক্ষমতা তৈরি হবে।

আপনার মতামত লিখুন :