ধুনটে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

বগুড়া প্রতিনিধি
বগুড়ার ধুনট উপজেলায় বিয়ের দাবীতে প্রেমিক আলহাজ্ব মিয়ার বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন করছে রোকেয়া খাতুন নামে এক গৃহবধু। আলহাজ্ব মিয়া কাশিয়াহাটা গ্রামের মৃত ফজলার রহমানের ছেলে। গতকাল উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের কাশিয়াহাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার খাদুলী গ্রামের বাহাদুর আলীর মেয়ে রোকেয়া খাতুনের প্রায় ২০ বছর পুর্বে কাশিয়াহাটা গ্রামের কৃষক সাইদুল ইসলামের সাথে বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে ১টি ছেলে ও ২টি মেয়ে সন্তান রয়েছে। সুখেই কাটছিল তাদের দিন। প্রায় ৪ বছর পুর্বে রোকেয়া খাতুনের সাথে তার স্বামীর মাধ্যমে পরিচয় হয় ডেকোরেটর ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মিয়ার সাথে। পরিচয়ের পর থেকে আলহাজ্ব মিয়া রোকেয়া খাতুনের বাড়িতে অবাধে যাতায়াত করতো।

এক পর্যায়ে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে আলহাজ্ব মিয়া রোকেয়া খাতুনের সাথে গভীর সম্পর্ক গড়ে তোলে। এ অবস্থায় গতকাল বিয়ের দাবী নিয়ে আলহাজ্ব মিয়ার ডেকোরেটর দোকানে যায় রোকেয়া খাতুন। তখন তাকে বাড়িতে যেতে বলে আলহাজ্ব। এরপর বিয়ের দাবী নিয়ে আলহাজ্ব মিয়ার বাড়িতে যায় রোকেয়া। এ সময় আলহাজ্ব মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন রোকেয়াকে ভয়ভীতি দেখিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে।

অবশেষে প্রেমিকাকে বাড়িতে রেখেই আলহাজ্ব মিয়া পরিবার পরিজন নিয়ে আত্মগোপনে করেছে। এরপর থেকে বিয়ের দাবীতে আলহাজের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন কর্মসূচী অব্যাহত রেখেছে রোকেয়া। দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অনশন থেকে সরে দাড়াবেন না বলে জানান তিনি। ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :